আর যাই হোক কখনো টিন আর গম চুরি করবো না : কনক চাঁপা

সিনেমার গানে ‘কুইন’ বলা হয় রুমানা মোর্শেদ ওরফে কনক চাঁপাকে। প্লে-ব্যাকের বাইরে আধুনিক গান, নজরুল সংগীত, লোকগীতি সহ প্রায় সবধরনের গানে তিনি সমান পারদর্শী। ৩২ বছর ধরে গানের ভুবনে সমান তালে কাজ করে যাচ্ছেন কনক চাঁপা। এ পর্যন্ত তিনি কয়েক হাজার গানে কণ্ঠ দিয়েছেন। গানের বাইরে কনক চাঁপা নিজেকে রাজনীতিতে জড়াচ্ছেন। সেজন্য আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) থেকে নমিনেশন ফরমও কিনেছেন। তার আসন সিরাজগঞ্জ-১।দেশে ও দেশের বাইরে যারা কনক চাঁপার গান শোনেন, তাদের মনে প্রশ্ন; কেন কনক চাঁপা সংসদ নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন! আর কেনই বা নির্বাচনে অংশ নেওয়ার বাসনা এলো রে তার মনে।

বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত এই শিল্পী তার ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। সেখানে তিনি সবকিছুর পরিষ্কার ব্যাখ্যা দিয়েছেন।তার অফিসিয়াল ফেসবুক আইডিতে দেয়া স্টাটাসটি হুবুহু তুলে দেয়া হলো-‘ছোট বেলা থেকেই আমি আমার মাকে সমাজ সেবায় নিয়োজিত থাকতে দেখেছি। তাঁর মানবসেবা দেখে দেখে বড় হয়েছি।দুইমুঠ ভাত থেকেও যে আরেকজন কে সহায়তা করা যায় নিরবে তা দেখে বিস্মিত হয়েছি। মানুষের প্রতি ভালবাসা, পশুর প্রতি ভালবাসা, অসহায়ের পক্ষে কথা বলা এগুলো আমার মায়ের বাড়াবাড়ি রকমের অভ্যাস। তাঁর আদর্শেই বড় হবো খুব স্বাভাবিক।

বড় হয়ে যখন পেশাদার শিল্পী হয়ে রুটিরুজী শুরু করেছি তখন থেকেই আমি অসহায়ের পাশে আছি। সমাজের সব অসংগতির বিরুদ্ধে আমার কঠোর অবস্থান। একজন সফল শিল্পী হয়েও আমি কখ‌নোই আমার বিত্তকে মধ্যবিত্ত থেকে উচ্চবিত্তে পরিবর্তন করিনি।একথা আমার সাথে যারা চলাফেরা করেন তারা সবাই একবাক্যে বলবেন।আমার মানসিক শক্তি, শারীরিক শক্তি সবই বর্তমান। আমি একজন সাহসী মানুষ বটে। আর মানুষের পাশে বৃহৎ আকারে দাঁড়াতে বড় একটা প্ল্যাটফর্ম দরকার।

আমার অর্থনৈতিক শক্তি দরকার কিন্তু সে অর্থ আমার জন্য না।দুইমুঠ ডালভাত খাওয়ার জন্য বাকী সারাজীবনের অর্থ কড়ি আলহামদুলিল্লাহ আমার আছে এবং আমাকে যারা অপছন্দ করে তারাও জানে কনকচাঁপা আর যাই হোক টিন আর গম চুরি করবেনা ইনশাআল্লাহ। আমি একজন সৎ মানুষ ও বটে। এ আমার অহংকার নয়। অহংকার একমাত্র আল্লাহর পোষাক। আমার সততা আমার গর্ব।আমি আমার গ্রাম কাজীপুর এর মানুষের পাশে গায়ে গা লাগিয়ে দাঁড়াতে চাই। তারা অনেক দিন ধরে নির্যাতিত একথা সবাই জানে।

সেখানে আমার আরাম আয়েশের জীবন ছেড়ে গা ঝাড়া দিয়ে উঠে দাঁড়ানো ছাড়া আর কোনো পথ আমার ছিলো কি?আমি একজন পঞ্চাশের ঘরের মানুষ। এই বয়সেই গানের জগতের সব পুরস্কার সব ভালবাসা সব আশীর্বাদ পেয়েছি আলহামদুলিল্লাহ। নাতীনাতনী মেয়েজামাই ছেলের বৌ দিয়ে সাজানো বেহেস্ত এর বাগানের মত আমার সংসার। কিন্তু আরামদায়ক এই তুলতুলে ফুলফুলে জীবন ছেড়ে যুদ্ধে নামলাম মানুষকে ভালবেসে কারণ তাদের অপার ভালবাসার বিনিময়ে তাদের অনেক বেশী ভালবাসা উপহার দিতে চাই।

আমার যে আসন তাতে যে যুদ্ধ হবে তাতে আমি অপঘাতে মরেও যেতে পারি সে আশংকা ও আমার আছে। থাকুক আমি সেসব পরোয়া করিনা। মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করিনি সেই আফসোস থেকেই আমি দেশের জন্য আমার জীবন উৎসর্গ করতে চাই।নিজের শিক্ষার শেকড়ের উপর দাঁড়িয়েই আমি দিনবদলের খেলা খেলতে চাই। দেশের মানু‌ষের ভালবাসা, পরিবারের সমর্থন আমার আছে আলহামদুলিল্লাহ। আমি যুদ্ধে নামলাম হারার জন্য নয় কিন্তু হেরে গেলেও লজ্জিত হবো না কারণ আমি নিজের কাছে নিজে পরিষ্কার। আল্লাহ ভরসা।

One comment

  1. Taxi moto line
    128 Rue la Boétie
    75008 Paris
    +33 6 51 612 712  

    Taxi moto paris

    Hello to all, how is everything, I think every one is getting more from this web page,
    and your views are nice in favor of new visitors.